কিভাবে ব্লগিং শুরু করবেন? নতুনদের জন্য সফলতার সহজ উপায়

Please log in or register to like posts.
পোস্ট

ব্লগ কি এবং কেন ব্লগিং করবেন আজকে কথা বলব এসব বিষয় নিয়েই ,
তো চলুন শুরু করা যাক আপনি যদি একজন ব্লগার হতে চান তাহলে আপনার প্রথমে যেটা প্রয়োজন সেটা হচ্ছে একটা ওয়েবসাইট, সেজন্য,
আপনি চাইলে blogger.com বা ওয়ার্ডপ্রেসে একটি ওয়েবসাইট খুলতে পারেন অথবা অন্যান্য অনেক প্ল্যাটফর্ম আছে যেটা আপনার পছন্দ হয়েছে তাতে খুলতে পারেন।
blogger.com আপনি ফ্রিতে একটা ওয়েবসাইট খুলতে পারবেন একদম ফ্রিতে, তো এখানে আপনি চাইলে ডোমেইন নিতে পারেন অথবা ফ্রি ডোমেইনেই কাজ করতে পারবেন। এখানে সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে আপনার কোন হোস্টিং লাগছেনা গুগোল  পুরোটা হোস্টিং ফ্রিতেই দিচ্ছে।

আর আপনি যদি ওয়ার্ডপ্রেসে ওয়েবসাইট খুলতে চান সেক্ষেত্রে আপনাকে কিছু টাকা খরচা করতে হবে, যেমন ধরেন হস্টিং, ডোমেইন আর যদি চান আপনি বিভিন্ন থিম ইউজ করতে পারেন ।তো প্রথম অবস্থায় আপনি ফ্রী থিম দিয়েই কাজ করতে পারবেন কোন সমস্যা নাই। তো এটা হচ্ছে প্রথম ধাপ।

ব্লগার নাকি ওয়ার্ডপ্রেস?

ব্লগার নাকি ওয়ার্ডপ্রেস

এখন যদি জিজ্ঞেস করেন ব্লগার এবং ওয়ার্ডপ্রেস এর ভিতরে কোনটা বেস্ট?
আমি বলব আপনি যদি নতুন হয়ে থাকেন তবে আপনার জন্য blogger.com বেষ্ট । কেননা আপনি এখানে ফ্রিতেই সম্পূর্ণ সুবিধাগুলো পাচ্ছেন কোন রকম টাকা পয়সা ছাড়াই। এবং ব্লগারের ইন্টারফেস খুবই সহজ।
এরপর যদি আপনি প্রফেশনালভাবে ব্লগিং করতে  চান সে ক্ষেত্রে পরবর্তীতে ওয়ার্ডপ্রেসে ট্রানস্ফার করতে পারবেন।
আর ওয়ার্ডপ্রেসে আপনি অনেকগুলো সুবিধা পাবেন যেগুলো আপনি বিভিন্ন প্লাগিন এর মাধ্যমে বিভিন্ন সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। যেখানে আপনাকে সবকিছু পেইড সেহেতু বুঝতেই পারছেন আপনি অনেক সুবিধাই বেশি পাবেন।

ব্লগিং সেক্টরটা যেমনটা সহজ ঠিক তেমনটাই কঠিন এর কারণ হচ্ছে আপনি যদি লেগে থাকতে পারেন তো আপনি ভাগ্যবান আর যদি থেমে যান তবে আপনি হেরে গেলেন। এই সেক্টরে অনেকেই আসেন তবে বেশিরভাগ লোকেরাই দেখা যাচ্ছে টিকতে পারেনা, এর মূলত কারণ হচ্ছে ধৈর্যহীনতা, আপনাকে অবশ্যই ব্লগিং করতে হলে প্রচুর পরিমাণ ধৈর্য লাগবে কেননা আপনার প্রতিটা আর্টিকেল, প্রতিটা পোস্ট, প্রত্যেকটা লেখা, যাই বলেননা কেন এগুলো মানুষের কাছে পৌঁছাতে একটু টাইম লাগবে। সবচেয়ে বড় ব্যাপার হচ্ছে ব্লগিং এর সবচেয়ে মূল্যবান জিনিস হচ্ছে ভিজিটর আর্টিকেল লিখতে আপনাকে ইউজ পরিমান টাইম দিতে হবে।
তাই এর জন্য প্রয়োজন হচ্ছে দরকারি, ইউনিক এবং তথ্যবহুল আর্টিকেল।
আপনার ব্লগে মানুষ কেন আসবে? তবে নিজেই চিন্তা করুন আপনি আমার ব্লগে কেন আসছেন নিশ্চয় আমার পোস্টগুলো ভাল লাগছে তাই অর্থাৎ আপনার ওয়েবসাইটে যখন একজন ভিজিটর আসবে সে নিশ্চয়ই তার যেকোনো একটা দরকারী তথ্য পাওয়ার জন্য আসবে সুতরাং আপনাকে তথ্য ও বহুল আর্টিকেল লিখতে হবে।

আর্টিকেল কোথায় পাবেন?

How to write article ictmela

যদি আপনার লেখালেখির অভ্যাস থাকে তবে আপনার জন্য এই সেক্টর টা অনেক সহজ আর যদি লেখালেখির অভ্যাস না থাকে তবে মোটামুটি কঠিনই বলা যেতে পারে। তবে এখানে ভয় পাওয়ার কোন কারণ নেই, আপনি যা পারেন আপনার যে কোন অভিজ্ঞতা, ট্রাভেল, বই পড়া, থেকে শুরু করে খেলাধুলা, নিউজ, টেকনিকেল  যে কোন বিষয় নিয়ে ব্লগ লিখতে পারেন আর যদি না পারেন সে ক্ষেত্রে আপনার কোন বন্ধু বা যারা লিখতে পারে তাদের হেল্প নিতে পারেন। আর আপনি চাইলে অনেক আর্টিকেল রাইটার আছে তাদের কাছ থেকে টাকার বিনিময় আর্টিকেল কিনে নিতে পারেন। যেহেতু আপনি নতুন  তাই ট্রাই করবেন নিজে নিজে লিখতে।

নিচের কয়েকটি বিষয় মাথায় রাখবেন:

  • কখনোই অন্যের লেখা কপি করবেন না।
  • কপিরাইটযুক্ত কোন ছবি ওয়েবসাইটে অ্যাড করবেন না।
  • প্রতিটি পোস্ট গুগল সার্চ কনসলে সাবমিট করবেন।
  • কোনভাবেই ধর্মীয় উস্কানিমূলক আর্টিকেল পাবলিশ করবেন না ‌
  • সরকারবিরোধী কোন কিছু নিয়ে লেখালেখি করার প্রয়োজন নেই।
  • অন্য কারো লেখা রি রাইট বা এডিট করে পোস্ট করবেন না।
  • সর্বনিম্ন 300 থেকে সর্বোচ্চ যত বেশি পারেন ততবেশি ওয়ার্ডের আর্টিকেল লেখার চেষ্টা করবেন।
  • সব সময় দরকারি এবং যেকোনো বিষয়ের তথ্যবহুল কী ওয়ার্ড এর মাধ্যমে আর্টিকেল লিখবেন।
  • কোন ধরনের স্পামিং অ্যাডাল্ট শুরশুরানি পোস্ট পাবলিক করবেন না।

সুতরাং উপরের সব বিষয়গুলো মাথায় রেখে ব্লগিং শুরু করতে পারেন।

ইনকাম সোর্স বা এডসেন্স পেতে হলে আপনাকে যা যা করতে হবে তা হল:

Best ads network ictmela.com

মূলত এডসেন্স কি? এডসেন্স হচ্ছে গুগল পরিচালিত একটি এড নেটওয়ার্ক, যার মাধ্যমে আপনি আপনার ওয়েবসাইট মনিটাইজেশন করে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।
যদি আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট সুন্দর, তথ্যবহুল, এবং গুগলের নীতিমালা মেনে পরিচালিত হয়ে থাকে, তবে আপনি খুব সহজেই মনিটাইজেশন পেয়ে যাবেন।
মনিটাইজেশন পাওয়ার জন্য আপনাকে অবশ্যই গুগলের কিছু নিয়ম নীতি মানতে হবে যা আমি উপরে লিখে দিয়েছি।
আপনাকে যদি গুগোল মনিটাইজেশন দেয় তবে আপনি একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ ইনকাম করতে পারবেন শুধুমাত্র লেখালেখি করার জন্যই।
তাছাড়া আপনি এফিলিয়েট লিংক এর মাধ্যমে ইনকাম করতে পারবেন বা অন্যান্য অনেক এড নেটওয়ার্ক প্ল্যাটফর্ম আছে সেগুলো ইউজ করে ইনকাম করতে পারবেন। তবে বিশ্বের সবচেয়ে বড় এবং সবচেয়ে বেশি ইনকামের জন্য গুগল এডসেন্স বেস্ট যাকে আপনি সোনার হরিণ বলতে পারেন।

ব্লগিং বিষয়ে আরো অনেকগুলো আর্টিকেল আছে আমাদের ওয়েবসাইটে তো আপনি সেগুলো পড়ে ফেলুন আশা করি আপনি আরো অনেক তথ্য জানতে পারবেন।
আর কিভাবে দ্রুত আপনি ব্লগে সফলতা পাবেন তার জন্য এসইও (SEO) নিয়ে অনেক তথ্যবহুল একটি আর্টিকেল পড়তে পারেন এর জন্য এখানে ক্লিক করুন।ক্লিক করুন→

এসইও (SEO) কি এবং কিভাবে নতুন ওয়েবসাইটের জন্যে এসইও করতে হয় ?
যেহেতু ব্লগের ইনকামের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে ভিজিটর সেহেতু এসইও বা সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

তো আজ এই পর্যন্তই, ভুল হলে ক্ষমা করবেন।
যদি কোন সাহায্য লাগে তবে আমাদেরকে কমেন্ট করুন অথবা অ্যাকাউন্ট ক্রিয়েট করে এডমিনকে পার্সোনাল মেসেজ করুন আশা করি হেল্প পাবেন ধন্যবাদ।

Reactions

0
0
0
0
0
0
Already reacted for this post.

কেউ পছন্দ করেনি!

One comment on “কিভাবে ব্লগিং শুরু করবেন? নতুনদের জন্য সফলতার সহজ উপায়

  1. Pingback: অনলাইন আয়ের সকল বিষয়বস্তু। How to earn money Online A to z guid |

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *