Dark Mode
  • Sunday, 13 June 2021
PayPal কি? বাংলাদেশ থেকে পেপাল একাউন্ট কিভাবে খুলবেন।

PayPal কি? বাংলাদেশ থেকে পেপাল একাউন্ট কিভাবে খুলবেন।

পেপাল নিয়ে আমরা বহুদিন যাবত একটা কথাই শুনে আসছি, "বাংলাদেশে পেপাল খুব শীঘ্রই তাদের কার্যক্রম চালু করবে" তবে প্রতিবারই আমরা আশাহত, ব্যবহারকারী বাংলাদেশ থেকে ভেরিফায়েড পেপাল অ্যাকাউন্ট কবে পাবে সে বিষয়ে কেও অবগত না। বেশ কিছুদিন আগে পেপাল কর্তৃপক্ষ সোনালী ব্যাংকের সাথে চুক্তি স্মারক স্বাক্ষর করেছে বলে যানা গেলেও সেটাও ছিল ভূয়া, পেপাল এর পরিবর্তে  তথ্যমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক ঘোষণা করেছেন Zoom নামের ব্যাংকিং সেবা। সরকারের পক্ষে পেপাল দেশে আনা হলে, যে মানুষ আউটসোর্সিং নিয়ে কাজ করে, তারা সহজেই বাংলাদেশ থেকে অর্থ আদান-প্রদান  করতে পারবে।এবং অনলাইন কেনাকাটা থেকে শুরু করে ৯৫% বিদেশি ওয়েবসাইটের সাথে লেনদেন সহজ হয়ে উঠবে। পেপাল দেশে আসলে, www.paypal.com ওয়েব সাইট থেকে যে কেও পেপাল অনলাইন অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন। মূলত দুই ধরণের পেপ্যাল অ্যাকাউন্ট তৈরী করা যায়,

  • একটি হলোব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট এবং
  • অন্যটি ব্যবসায়িক অ্যাকাউন্ট।
আমি কি বাংলাদেশে ভেরিফায়েড পেপাল অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবো?

এখনই এটি সম্ভব নয় কারণ বর্তমানে পেপাল এখানে কাজ করছে না বা বৈধতা নেই। পেপাল বাংলাদেশ কার্যক্রম শুরু করার পরেই  বাংলাদেশে পেপাল অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবে এবং নেনদেন করতে পারবেন। পেপাল অ্যাকাউন্ট তৈরি করার আগে হয়তোবা বাংলাদেশে কোন ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। সোনালী ব্যাংকের অনুমতি পেলে ব্যবহারকারীদের সোনালী ব্যাংকে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। তবে পেপাল আসলে স্বল্প সময়ের মধ্যে আরও একটি বেসরকারী ব্যাংক অনুমতি পেতে পারে।

বাংলাদেশ থেকে ভেরিফায়েড পেপাল অ্যাকাউন্ট কীভাবে পাবেন?

পেপাল দেশে আসলে ব্যবহারকারীরা সহজেই পেপাল অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন। তবে একাউন্ট সচল রাখতে পেপাল কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে আগে ভেরিফাই করতে হবে।

ভেরিফাই   সম্পূর্ণ করতে, পেপাল নিম্নলিখিত ডকোমেন্ট এবং তথ্যগুলো  প্রয়োজন হতে পারে:

  • 1. ব্যবহারকারী ব্যাংক অ্যাকাউন্টের তথ্য
  • ২. জাতীয় আইডি কার্ড / পাসপোর্ট / ড্রাইভিং লাইসেন্স
  • ৩. ব্যবসায় নিবন্ধনের কাগজপত্র
  • ৪. নাম অনুসারে বিদ্যুত বিল / ইউটিলিটি বিল কপি
  • ৫. ডেবিট কার্ড / ক্রেডিট কার্ডের তথ্য Mobile. মোবাইল নম্বর / ফোন নম্বর
শেষ কথা।

বাংলাদেশ থেকে পেপাল একাউন্ট আপনি এখনি খুলতে পারবেন সেক্ষেত্রে আপনাকে দেশের বাহিরের কাওকে দিয়ে ভেরিফাই করে নিতে হবে। যদি আপনার কোন আত্মীয় বা বন্ধু থাকে তবে তাদের ফোন নাম্বার এবং এদ্রেস ব্যাবহার করে আপনি একটি একাউন্ট করে ফেলতে পারেন। অবশ্যই মনে রাখবেন এতে অনেক ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন। এবং কি বাংলাদেশি আইপি ইউজ করার কারনে অন্রক সময় আপনার পেপাল একাউন্টটি নানা ধরনের লক বা ভেরিফিকেশনে পরতে পারে।

বলতে গেলে, ইলিগ্যাল ভাবে বেশ কয়েকটি উপায়ে আপনি পেপাল ইউজ করতে পারবেন তবে রিস্ক সম্পূর্ণ আপনার। যদি আপনার অনলাইন কেনাকাটা বা বিদেশি সাইটে পেমেন্ট বেশি জরুরি হয়, তাহলে আমাদের দেশ থেকে প্রায় সবগুলো অনলাইন ব্যাংক ডুয়েল কারেন্সি কার্ড প্রদান করছে, আপ্নিও চাইলে পাসপোর্টের মাধ্যমে নিয়ে নিতে পারেন।

আর যদি পাসপোর্ট না থাকে তবে,অনেক কোম্পানি আছে যারা কিনা ভার্চুয়াল কার্ড দিয়ে থাকে। আপনি চাইলে রিলোডেভল ভার্চুয়াল কার্ড কিনে নিতে পারে।

আমাদের ওয়েবসাইটে সার্চ করলেই, ভার্চুয়াল এবং ডুয়েল কারেন্সি কার্ড নিয়ে বেশ কয়েকটি আর্টিকেল পেয়ে যাবেন।

comment / Reply From

archive

please_select_a_date